• শিক্ষা

কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটির উদ্যোগে হচ্ছে আন্তর্জাতিক মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম

  • শিক্ষা
  • ২৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২১ ১১:২৯:৪৫

ছবিঃ সিএনআই

নিউজ ডেস্ক: কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশের ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন বিভাগের উদ্যোগে একটি আন্তর্জাতিক মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম হচ্ছে। বাংলাদেশ, যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য, কানাডা, গ্রিস, ভারত, বুলগেরিয়া ও ইতালির প্রতিনিধিরা এতে রিসোর্স পারসন হিসেবে কাজ করবেন। ‘একবিংশ শতাব্দীর ফিল্ম অ্যান্ড ডিজিটাল মিডিয়া’ শীর্ষক তিন দিনব্যাপী আন্তর্জাতিক অনলাইন সম্মেলনের শেষ দিন তারা এ বিষয়ে সম্মত হয়েছেন।

বৃহস্পতিবারের এই অনুষ্ঠানের শুরুতে বাংলাদেশের পক্ষে স্বাগত বক্তব্য রাখেন অবসরপ্রাপ্ত মেজর জেনারেল ড. ফসিউর রহমান। কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশের ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন বিভাগের জমকালো এই আয়োজনের সঙ্গে ছিল কানাডার বিসিআই মিডিয়া। জুম প্লাটফর্মের মাধ্যমে অনেকেই এই আন্তর্জাতিক সম্মেলনে অংশগ্রহণ করেন। বাংলাদেশ সময় বৃহস্পতিবার রাত ৮টায় তৃতীয় ও শেষ দিনের অনুষ্ঠান শুরু হয়। অবসরপ্রাপ্ত মেজর জেনারেল ড. ফসিউর রহমানের স্বাগত বক্তব্যের পর ভারতের পরিচালক ও সিনেমাটোগ্রাফার ড. সেমিন বালাচন্দ্রন নাইর আলোচনা করেন ‘‌চেঞ্জিং প্যারাডাইম ইন ফিল্মমেকিং’ নিয়ে। 

এরপর পিয়ানো বাজিয়ে শোনায় গ্রিসের শিশুশিল্পী স্টেলিওস কেরাসিডিস, যে সুর মুগ্ধ করে সবাইকে। স্টেলিওস কেরাসিডিসের বাবা ফোতিওস কেরাসিডিসও যুক্ত ছিলেন অনুষ্ঠানে। তিনি জানান, স্টেলিওস কেরাসিডিস মাত্র ছয় বছর বয়সেই পিয়ানো বাজিয়ে গ্রিসের গোল্ডেন ক্ল্যাসিক্যাল মিউজিক অ্যাওয়ার্ড পায়। তিন দিনব্যাপী এই সম্মেলন উদ্বোধন করেন কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশের উপাচার্য প্রফেসর ড. মুহাম্মদ মাহফুজুল ইসলাম। 

সম্মেলনটি যৌথভাবে সঞ্চালনা করেন কানাডিয়ান ইউনিভার্সিটি অফ বাংলাদেশের ফিল্ম অ্যান্ড টেলিভিশন বিভাগের প্রধান ড. জহির বিশ্বাস এবং গ্রিসের কবি ও সাংবাদিক মিসেস লেনা খিরোপাউলোস। শেষ দিন ড. জহির বিশ্বাসের রচিত গ্রিক দর্শন ও মিথ কেন্দ্রিক ইংরেজি কবিতা ‘হু এম আই’ আবৃত্তি করে শোনান মিসেস লেনা। 

মন্তব্য ( ০)





  • company_logo